অবৈধ ফোন বন্ধ হয়ে যাবে জুনে

দেশে অবৈধ মোবাইল ফোন সেট শনাক্ত এবং প্রবেশ বন্ধ করতে আগামী ১ জুন চালু হতে যাচ্ছে ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্ট্রার (এনইআইআর) সিস্টেম। এটি চালু হলে দেশে কোনো অবৈধ মোবাইল ফোন সেট এলে তা ধরা পড়বে এবং ফোনটি সচল হতে দেবে না। এছাড়া দেশে অনিবন্ধিত কোনো মোবাইল ফোন ব্যবহার করা যাবে না। সিস্টেমটি চালু করতে সিনেসিস আইটিকে দায়িত্ব দিয়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি। এজন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ সরবরাহ, স্থাপন ও পরিচালনা করবে সিনেসিস আইটি। প্রতিদিনের সংবাদকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন বিটিআরসির চেয়ারম্যান।

বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার বলেন, এরই মধ্যে আইএমইআই ডাটাবেজে ১৪ কোটি আইএমইআই নম্বর যুক্ত হয়েছে। ৭ কোটি মোবাইল ফোন সেটের তথ্যও যোগ করা হয়েছে। সিস্টেমটি চালু হলে বিদ্যমান সব মোবাইল ফোন নিবন্ধিত হয়ে যাবে। এরপর যেসব মোবাইল ফোন সেট দেশে নিয়ম মেনে ঢুকবে না, সেগুলো সচল হবে প্রক্রিয়া মেনে।

এর আগে এনইআইআর সিস্টেম চালু হওয়ার কথা ছিল মার্চের মধ্যে। টেলিসিস্টেম সংশিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মোবাইল ফোন সেট বৈধ না অবৈধ তা দেখেতে বিটিআরসির সঠিক আইএমইআই যাচাই পদ্ধতি আছে। এজন্য এনইআইআর নামে একটি ডাটাবেজ তৈরি করা হয়েছে। এখন অবকাঠামো তৈরির কাজ চলছে। এরই মধ্যে প্রাথমিকভাবে তৈরি ডাটাবেজ ব্যবহার করা যাচ্ছে। এখন মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে কেওয়াইডি টাইপ করে স্পেস দিয়ে ১৫ ডিজিটের আইএমইআই নম্বর লিখে ১৬০০২ নম্বরে পাঠালেই ফিরতি এসএমএসে নম্বরটি বিটিআরসির ডাটাবেজে সংরক্ষিত রয়েছে কি না তা জানা যাবে। ফিরতি মেসেজে ডাটাবেজে সংরক্ষণের তথ্য থাকলে সেটি হবে বৈধ ফোন।

২০১৯ ও ২০২০ সালে দেশে তৈরি ও আমদানি হওয়া প্রায় ১১ কোটি ৮০ লাখ মোবাইল ফোনের আইএমইআই ডাটাবেজে সংরক্ষিত আছে। ২০২১ সালের পর যেসব মোবাইল ফোন সেট তৈরি হবে এবং আমদানি হবে সেসবের আইএমইআই ডাটাবেজে যুক্ত হয়ে যাবে। ২০১৮ সালের আগের মোবাইল ফোন সেটগুলোর আইএমইআই নম্বর এনইআইআর থেকে ‘ওকে’ হয়ে সরাসরি আইএমইআই ডাটাবেজে চলে যাবে। সঙ্গে সঙ্গে মোবাইল ফোন সেটগুলোও নিবন্ধিত হয়ে যাবে। এনইআইআর চালু করা হলে কোনো সিমকার্ড অবৈধ মোবাইল ফোন সেটে (যেগুলোর আইএমইআই নম্বর ডাটাবেজে নেই) চালু হবে না।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, মোবাইল ফোন সেট আসল না কি নকল তা চেনার জন্য মূলত দুটি ডাটাবেজ কাজ করবে। একটি বিটিআরসির তৈরি এনইআইআর ডাটাবেজ, অন্যটি আইএমইআই ডাটাবেজ। এনইআইআর ডাটাবেজে সংযুক্ত থাকবে মোবাইল ফোন অপারেটররা। আরো থাকবে মোবাইল ফোন সেট উৎপাদক ও আমদানিকারকরা। এই দুটি পক্ষের মাধ্যমেও এনইআইআর মোবাইল ফোনের শুদ্ধতা যাচাই করতে গিয়ে কোনো সমস্যা পেলে মোবাইল ফোন সেটগুলো ‘হোয়াইট’ থেকে ‘গ্রে’তে রাখা হবে। ওই সময় গ্রাহকদের নির্দিষ্ট সময় দেওয়া হবে। ওই সময়ের মধ্যে গ্রাহক তার মোবাইল ফোনের শুদ্ধতা যাচাইয়ে ব্যর্থ হলে হ্যান্ডসেটটি কালো তালিকাভুক্ত করে স্থায়ীভাবে ব্লক করার নির্দেশনা আসতে পারে।

মোবাইল ফোন আমদানিকারকদের সংগঠন বিএমপিআইএর যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ মেসবাহ উদ্দিন প্রতিদিনের সংবাদকে বলেন, আইএমইআই ডাটাবেজ ও এনইআইআর সিস্টেম চালু হলে দেশে মোবাইল ফোননির্ভর অপরাধ কমবে। মোবাইল ফোন ছিনতাই, চুরিও কমবে। চোরাই ফোনবিক্রি কিংবা চালু করা যাবে না। অন্যদিকে গ্রে মার্কেট ছোট হতে হতে শূন্যে নেমে যাবে। প্রকারান্তরে বৈধ, চ্যানেল নির্ভর ও দেশে তৈরি মোবাইল ফোনের বাজার বড় হবে।

নতুন ব্যাগেজ আইনে ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য বিদেশ থেকে ৮টি মোবাইল ফোন আনা যায়। এর আগে নিয়ম ছিল সর্বোচ্চ ৫টি মোবাইল ফোন আনা যাবে। ২০১৮ সালের ১ জানুয়ারি থেকে এই নিয়ম কার্যকর আছে। ২০১৭ সালের ১২ ডিসেম্বর বিটিআরসি একটি পরিপত্র জারি করে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরে পাঠায়। এতে উল্লেখ ছিল ‘ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য ব্যক্তিপর্যায়ে মোবাইল ফোন হ্যান্ডসেট আমদানির সংখ্যা ৫টির পরিবর্তে ৮টি করা হয়েছে। প্রত্যেক যাত্রী প্রতিটি বোর্ডিং পাস বা সংশ্লিষ্ট ভ্রমণসংক্রান্ত কাগজ অনুয়ায়ী বিটিআরসির অনাপত্তিপত্র ছাড়া ৮টি মোবাইল ফোন নিয়ে আসতে পারবেন। তবে এসব হ্যান্ডসেটের মধ্যে সর্বোচ্চ দুটি আনা যাবে বিনা শুল্কে। বাকিগুলোর ক্ষেত্রে কাস্টমস সংশ্লিষ্ট আইন প্রযোজ্য হবে।

আইএমইআই ডাটাবেজ বা এনইআইআর ডাটাবেজ চালু হলে বিমানবন্দর বা স্থলবন্দর দিয়ে এসব মোবাইল ফোন সেট নিয়ে আসার সময় সেখানে রাখা ডেস্কে নির্ধারিত ফরম পূরণ করে বিদেশ থেকে আনা মোবাইল ফোনের আইএমইআই নম্বর লিখে দিতে হবে। তারপর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা তা যাচাই করার জন্য বিটিআরসির ডাটাবেজে পাঠাবেন। বিদেশ থেকে আনা মোবাইল ফোনের উপযুক্ত প্রমাণপত্র থাকলে তা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ চালু করে দেবে। বিদেশ থেকে পাওয়া উপহার বা কেনা ফোনের বেলায় সুনির্দিষ্ট নিয়ম ও বিধিবিধান অনুসরণ করা হবে বলে জানা গেছে।

টাঙ্গাইল জেলার খবর সবার আগে জানতে ভিজিট করুন www.newstangail.com। ফেসবুকে দ্রুত আপডেট মিস করতে না চাইলে এখনই News Tangail ফ্যান পেইজে (লিংক) Like দিন এবং Follow বাটনে ক্লিক করে Favourite করুন। এর ফলে আপনার স্মার্ট ফোন বা কম্পিউটারে সয়ংক্রিয়ভাবে নিউজ আপডেট পৌঁছে যাবে।

One comment

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.