সকালে খালি পেটে চা-কফি পান করলে যা হয়

চা-কফির মগে চুমুক না দিলে অনেকেরই দিন শুরু হয় না। অনেকে তো খালি পেটেই চা-কফি খাওয়া শুরু করেন। তবে জানেন কি? এতে শরীরের কতটা ক্ষতি হয়?

এজন্য বিশেষজ্ঞদের মতে, খালি পেটে চা-কফি খাওয়ার আগে অন্তত এক মগ পানি পান করা উচিত। তা না হলে একাধিক রোগের প্রকোপও বৃদ্ধি পায়। তবে এর সমাধান কী?

আসলে পানি না নিয়ে চা পান করলে শরীরে অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে যায়। ফলে গ্যাস-অম্বল, হজমসহ একাধিক পেটের সমস্যা বেড়ে যায়। শুধু তা-ই নয়, চায়ের আগে পানি পান করলে আলসারের মতো রোগেও আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

পানি পান করার সঙ্গে সঙ্গেই পাকস্থলীতে উপস্থিত অ্যাসিড পানির সঙ্গে মিশে যায়। ফলে চা পানের পর শরীরে অ্যাসিডের মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। এক্ষেত্রে আরও বেশ কিছু শারীরিক সমস্যা হতে পারে-

>> কফি এবং চা দু’টোতেই ট্যানিন নামে একটি রাসায়নিক রয়েছে। যা দাঁতের রঙে পরিবর্তন ঘটায়। চা পান করলে দাঁতে একটি রাসায়নিক স্তর তৈরি হয়। কফি বা চা খাওয়ার ১৫ মিনিট আগে এক গ্লাস পানি পান করা দাঁতে একটি প্রতিরক্ষামূলক স্তর তৈরি করে এবং তাদের গ্যাস-অম্বল হওয়ার সম্ভাবনা হ্রাস করে।

>> অনেকেই ভেবে থাকেন, সকালে এক কাপ চা বা কফি পান করলে শরীর সতেজ হবে! তবে ধারণাটি ভুল। খালি পেটে চা বা কফি খাওয়া শরীরকে পানিশূন্য করে তোলে। সবচেয়ে ভালো হয়, কোনো খাবার খেয়ে চা পান করা। তা যদি না করেন, তবে এক গ্লাস পানি অবশ্যই পান করতে হবে।

>> কফি বা চা পান করার পর অনেকের পেট জ্বালা-পোড়া করতে পারে। এটি অ্যাসিডিক প্রকৃতির কারণে ঘটে। কফি এবং চায়ের পিএইচ মান যথাক্রমে ৫ ও ৬ হয়। যখন পানির পিএইচ মান ৭ হয়। চা বা কফি পান করার আগে এক গ্লাস পানি পান করা অ্যাসিডের উত্পাদন কমায়।

>> কফি বা চা পান করলে পেটের আলসার সম্ভাবনা বাড়ে। বিশেষ করে দুধ-চিনি মেশানো চা বা কফি খেলে। চিকিৎসকদের মতে, দুধ চায়ে উচ্চমাত্রায় অ্যাসিড থাকে। যা পেটের আলসার উত্পাদন করে। চা পাকস্থলীতে যাতে অ্যাসিড তৈরি না করে, এজন্য খালি পেটে অবশ্যই এক গ্লাস পানি পান করুন।

"নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.