ব্রেকিং নিউজ :

মহান স্বাধীনতার আদর্শকে ভুলুণ্ঠিত করেছে তারা: সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন এবং সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি বলেছেন, ‘অনেকেই ভেবেছিলেন এ দেশ টিকতে পারবে না। সেই বাংলাদেশ পারমানবিক বোমা ছাড়া আর্থ-সামাজিক সব সূচককে পাকিস্তানকে পেছনে ফেলে অদম্য গতিতে এগিয়ে চলেছে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘একটি রাজনৈতিক দল এতদিন মহান স্বাধীনতার আদর্শকে ভুলুণ্ঠিত করেছে। তারা মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধকে বিসর্জন দিয়েছে, মুক্তিযুদ্ধের রণ ধ্বনিকে নিষিদ্ধ করেছে, সর্বকালের সেরা ভাষণটিকে নিষিদ্ধ করেছে তারাই এখন লোক দেখানো স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করছে।’

আজ রবিবার (১৪ মার্চ) সকাল ১১ টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে টাঙ্গাইলের মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষ উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় অদম্য বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

সেতু মন্ত্রী আরও বলেন, ‘আজকে তারা একদিকে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করছে অন্যদিকে ইতিহাসকে আবার মুকুট দিয়ে ডেকে দেওয়ার চেষ্টা করছে। নতুন ষড়যন্ত্রে তারা আবার মেতে উঠেছে। তারা স্বাধীনতার ঘোষণার অন্যতম পাঠককে ঘোষক বলতে চায়।

তারা আজকে আবার নতুন করে ৭ মার্চ পালন করছে। একদিকে ৭ মার্চ পালন করছে আবার বলছে একটি ভাষণে স্বাধীনতা আসে নাই। ৭ মার্চকে ছোট করার জন্য তারা ৭ মার্চ পালন করছে। মহান স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে ইতিহাসের মিমাংশিত সত্যকে তারা অমিমাংশিত করতে চায়। আজকে তারা আপন মনের মাধুরী মিশিয়ে প্রশংসিত সত্যকে বিকৃত করতে চায়।

মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজিই গ্যালারিতে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো. আলাউদ্দিন।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য উপস্থাপন করেন, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুহম্মদ শফিকুর রহমান এমপি, বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান ও জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক বিশিষ্ট কবি ও সাংবাদিক মিনার মনসুর।

সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিব বর্ষ উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. মোহাম্মদ খাদেমুল ইসলাম। আলোচনা সভা পরিচালনা করেন, ড. রোকসানা হক রিমি ও সুব্রত ব্যানার্জী। সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা সরাসরি ও শিক্ষার্থীরা ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেন।

 

"নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.