ব্রেকিং নিউজ :

সোনামুড়িতে জোড়াখুনের বিচার চেয়ে হেযবুত তওহীদ’র টাঙ্গাইলে সাংবাদ সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ ২০১৪ সনের ১৪ মার্চ নোয়াখালীর সোনামুড়িতে হেযবুত তওহীদের ২জন সদস্যকে জবাই করে হত্যা, বাড়ি-ঘর লুটপাট, অগ্নিসংযোগে জরিত আসামিদের গ্রেফতারের দাবি এনে সাংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু ভিআইপি আডেটরিয়াম হল রুমে এ সাংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে টাঙ্গাইল জেলা হেযবুত তওহীদ।

সাংবাদ সম্মেলনে লিখিত দেয়া বক্তব্যে হেযবুত তওহীদ টাঙ্গাইল জেলা শাখার সভাপতি মো. রাশেদুল ইসলাম বলেন, গত ২৬বছরে একটি ধর্মব্যবসায়ী উগ্রবাদী সন্ত্রাস গোষ্টী হেযবুত তওহীদের সদস্যদের উপর ৪০০বারেরও বেশি হামলার শিকার হয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ পৈশাচিক হামলাটি হয় ২০১৬ সালের ১৪মার্চ। সেদিন হেযবুত তওহীদের এমামের বাড়িতে নির্মানধীন মসজিদকে গির্জা বলে গুজব রটিয়ে ধর্মব্যবসায়ী শেণী ধর্মীয় উন্মাদনা সৃষ্টি করে। দিনভর চলে হামলা, জালাও পোড়াও, রক্তপাত ও হত্যাকান্ড। হেযবুত তওহীদের দুজন সদস্যকে হত্যা করে পেট্রোল ঢেলে লাশ পুড়িয়ে দেওয়া হয়।

অভিযোগ করে আরোও বলেন হত্যাকান্ডের ৫বছর পেরিয়ে গেলেও অপরাধীদের বিচার হয়নি। হামলার ঘটনায় জড়িত থাকা বহু আসামী স্থানীয় রাজনৈতিক দলগুলোর আশ্রয়ে নির্বিঘ্নে ঘুরে বেড়াচ্ছে কিন্তু পুলিশ তাদের গ্রেফতার করছে না। আভিযোগ এনে বলেন হেযবুত তওহীদের এমামের বাড়িতে হামলার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার নিশ্চিত করা, বর্তমানে যারা হেযবুত তওহীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা হ্যান্ডবিল বিতরণ করেছে তাদেরকে আইনের আওতায় আনা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন হেযবুত তওহীদের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. এনামুল হক বাপ্পাসহ হেযবুত তওহীদের নেতৃবৃন্দ।

"নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.