News Tangail

মধ্যরাতে তরুণীর ঘরে ইউপি সদস্য, অতঃপর!!!

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় মধ্যরাতে এক তরুণীর (১৮) ঘর থেকে হেলাল হোসেন (৪৮) নামে এক ইউপি সদস্যকে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী।

সোমবার (৩ মে) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলার ৮ নম্বর চরএলাহী ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে।

আটক হেলাল হোসেন ওই ওয়ার্ডের বর্তমান ইউপি সদস্য ও একই এলাকার মৃত নূরুল হকের ছেলে।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. আবদুর রাজ্জাক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, আটক ইউপি সদস্য হেলাল হোসেনকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দীর্ঘদিন থেকে হেলাল মেম্বার ওই তরুণীকে টেলিফোনে উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন। সোমবার রাতে কথা আছে বলে তিনি ওই তরুণীর ঘরে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টাকালে স্থানীয়রা তাকে হাতেনাতে আটক করে। পরে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে খবর দেয় এলাকাবাসী।

ভুক্তভোগী তরুণী  জানান, স্থানীয় ইউপি সদস্য হেলাল গত কয়েক মাস থেকে মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে তাকে নানাধরণের কুরুচিপূর্ণ কথাবার্তা বলে আসছিলেন। সোমবার রাতে তাকে ফোন দিয়ে কথা আছে বলে ঘরে ঢুকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে মেম্বারকে হাতেনাতে আটক করে। এ সময় তিনি বিভিন্ন সময়ের বেশ কিছু কুরুচিপূর্ণ কথাবার্তার কল রেকর্ড এলাকাবাসীকে শোনান।

কোম্পানীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. রিয়াদুল হাসান রাত ৩টার দিকে আটক ইউপি সদস্য হেলালকে থানায় নিয়ে আসেন বলে নিশ্চিত করেছেন।

থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি জাগো নিউজকে বলেন, হেলাল হোসেন নামে চরএলাহীর একজন ইউপি সদস্যকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আটক করা হয়েছে। বাদীর অভিযোগের ভিত্তিতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

"নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.