ব্রেকিং নিউজ :

দেলদুয়ারে মাইকে ডাকাতির ঘোষণা দেওয়ায় ১৭ জন আটক

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার পাছ এলাসিন গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে বৃহস্পতিবার (২০ মে) গভীর রাতে বাড়িতে হামলা চালানোকালে স্থানীয় মসজিদের মাইকে ডাকাতির ঘোষণা দেওয়ায় এলাকাবাসী এগিয়ে এসে ১৭ ব্যক্তিকে আটক করেছে। পরে এলাকাবাসীর জনরোষ থেকে ওই ১৭ ব্যক্তিকে পুলিশ উদ্ধার করেছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, পাছ এলাসিন গ্রামের মৃত আব্দুস সালাম মিয়ার ছেলে সাইফুল ইসলামের সাথে মৃত তোতা মিয়ার ছেলে খন্দকার লালন মিয়ার বসত বাড়ির জমি নিয়ে বিরোধ চলছিল।

ওই বিরোধের জের ধরে বৃহস্পতিবার দিনগত রাত ১২টার দিকে খন্দকার লালন মিয়ার ২৮-৩০জন লোক ১০টি মোটর সাইকেল নিয়ে সাইফুল ইসলামের বাড়িতে হামলা চালায়। সাইফুল ইসলাম বাড়িতে না থাকায় তার স্ত্রী ছালমা বেগম ও মা খোদেজা বেগমকে তারা বেদম মারপিট করে।

তাদের আর্তচিৎকারে এক প্রতিবেশি ডাকাত হানা দিয়েছে বলে জানালে স্থানীয় মসজিদের মাইকে ঘোষণা দেওয়া হয়। ওই ঘোষণায় এলাকার লোকজন একত্রিত হয়ে সাইফুল ইসলামের বাড়ি ঘেরাও করে এবং এক পর্যায়ে ১৭ ব্যক্তিকে ৮টি মোটরসাইকেল সহ আটক করে।

এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতা তিনটি মোটরসাইকেল আগুন দিয়ে জ্বালিয়ে দেয় ও পাঁচটি মোটরসাইকেলে ভাংচুর চালায় এবং আটককৃতদের মারপিট করতে উদ্যত হয়।

তাৎক্ষণিকভাবে দেলদুয়ার থানা পুলিশ এসে আটককৃতদের জনরোষ থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। আহত ওই দুই নারীকে দেলদুয়ার উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

দেলদুয়ার থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) সরকার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, জমি সংক্রান্ত বিষয়ে সৃষ্ট ঘটনায় এলাকাবাসী ৮টি মোটরসাইকেল সহ ১৭ ব্যক্তিকে আটক করে।

জনরোষের হাত থেকে রক্ষা করতে ওই ১৭জনকে উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। উত্তেজিত জনতা তিনটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেয় এবং পাঁচটিতে ভাংচুর চালায়। এসব বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।

"নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.