ব্রেকিং নিউজ :

টাঙ্গাইলে তিতাস গ্যাস কোম্পানীর কর্মী পরিচয়ে প্রতারণা করেন তারা

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক |টাঙ্গাইলে তিতাস গ্যাস কোম্পানীর কর্মী পরিচয়ে গ্রাহকের বকেয়া গ্যাস বিল আদায় করার সময় দুই প্রতারককে গ্রেপ্তারের ঘটনায় অভিযোগপত্র পাওয়ার ছয় ঘণ্টার মধ্যে মামলার চার্জশীট দিয়েছে পুলিশ।

মঙ্গলবার(২৫ মে) সন্ধ্যা ছয়টায় তিতাস গ্যাস টাঙ্গাইল অফিসের ম্যানেজার মো. আব্দুর রউফ বাদী হয়ে গ্রেপ্তারকৃত প্রতারকদের বিরুদ্ধে মির্জাপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ পাওয়ার ছয় ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত কাজ শেষ করে রাত পৌনে ১২ টায় ওই ঘটনায় চার্জশীট দেয় পুলিশ। বুধবার(২৬ মে) সকালে তাদেরকে আদালতে উপস্থাপন করা হলে প্রতারকদ্বয়কে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছেন- টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার ছবুর উদ্দিনের ছেলে ফিরোজ আহমেদ(৩২) ও কালিহাতী উপজেলার পিচুরিয়া গ্রামের শাসছুদ্দিন তালুকদারের ছেলে রাশেদ তালুকদার(৩৫)।

জানা যায়, গ্রেপ্তারকৃত ফিরোজ ও রাশেদ দীর্ঘদিন ধরে নিজেদের তিতাস গ্যাস কোম্পানীর কর্মী পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন বাসা-বাড়িতে গিয়ে বকেয়া গ্যাস বিল আদায় করার নামে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছিল। তাদের অভিযানের সময় কেউ গ্যাস বিল দিতে না পারলে তাদের বাসা-বাড়ির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার হুমকি দেওয়া হত।

মঙ্গলবার তারা মির্জাপুর বাজারের বিভিন্ন বাসা-বাড়িতে গিয়ে একই কায়দায় বিল আদায় ও হুমকি দিতে থাকে। এ সময় বাসা বাড়ির মালিককে পাওয়া না গেলে তাদের ফোন নম্বর সংগ্রহ করে প্রতারকরা মোবাইলফোনে যোগাযোগ করে তাদের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার হুমকি দেয়। মির্জাপুর উপজেলা সদরের পোস্টকামুরী এলাকায় তাদের কর্মকান্ড সন্দেহ হলে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশে খবর দেয়।

খবর পেয়ে মির্জাপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হাবিবুর রহমান উকিল ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের সঙ্গে কথা বলে প্রতারণার বিষয়টি নিশ্চিত হন। এসময় গ্রাহকের কাছ থেকে আদায় করা চার হাজার টাকা ও একটি ডায়েরিও তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়।

তিতাস গ্যাস টাঙ্গাইল অফিসের ম্যানেজার আব্দুর রউফ জানান, জনতার হাতে আটক ফিরোজ ও রাশেদ তিতাস গ্যাস কোম্পানীর কেউ নয়। প্রতারণার মাধ্যমে গ্রাহকের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়াই তাদের কাজ। তিনি বাদী হয়ে প্রতারকদ্বয়ের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) শেখ রিজাউল হক দিপু জানান, মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয় টার দিকে অভিযোগ পাওয়ার পর মাত্র ছয় ঘণ্টা সময়ের মধ্যে তদন্ত কাজ শেষ করে তাদের বিরুদ্ধে চার্জশীট দেওয়া হয়েছে। বুধবার আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে বলেও তিনি জানান।

"নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.