ব্রেকিং নিউজ :

টাঙ্গাইলে কোরবানির মাংস আত্মসাৎ, মসজিদ কমিটি বাতিল

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্কঃ কোরবানির মাংস বিতরণে অনিয়মকে কেন্দ্র করে মসজিদ কমিটি ভেঙে ২১ সদস্যের অ্যাডহক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার মির্জাবাড়ি ইউনিয়নের পালবাড়ির কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে।

পালবাড়ি গ্রামের বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম জীবন জানান, সামাজিক ও ধর্মীয় রীতি অনুসারে কোরবানির পশুর মাংস তিন ভাগের এক ভাগ সমাজভুক্ত বাসিন্দাদের জন্য রাখা হয়। পরবর্তী সময়ে কোরবানির সব গরু ও খাসির মাংস একত্রিত করে প্রতিটি পরিবারের মধ্যে সমানভাবে বণ্টন করা হয়ে থাকে।

রফিকুল ইসলাম আরও জানান, এ বছর ওই মসজিদের মাংস বণ্টনের দায়িত্বে ছিলেন মসজিদ কমিটির সভাপতি বাবুল হোসেন বাবলু ও সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন। তাঁদের সহযোগিতায় ছিলেন মো. ঠান্ডু মিয়া, হযরত আলী ও আব্দুল হামিদ।

মির্জাবাড়ি ইউনিয়নের সাবেক সদস্য আবু জাফর বলেন, এবার দায়িত্বপ্রাপ্ত লোকজন গরুর মাংস বিতরণ করলেও খাসির মাংস বিতরণ করেননি। এ নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। গত শুক্রবার জুমার নামাজের পর বিষয়টি নিয়ে আন্দোলন শুরু করেন এলাকাবাসী।

স্থানীয় বাসিন্দা সূত্র জানায়, বিকেলের দিকে এলাকার লোকজন বিষয়টি মীমাংসার জন্য মসজিদে সমবেত হন। এ সময় বিক্ষুব্ধ লোকজন কমিটির নেতাদের বিরুদ্ধে নানা ধরনের স্লোগান দিতে থাকে। পরিস্থিতির চাপে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক খাসির মাংস নিজেরাই ভাগ করে নেওয়ার কথা স্বীকার করেন।

ওই এলাকার বাসিন্দা অ্যাডভোকেট আবদুর রশিদ বলেন, ভুল স্বীকার করায় লোকজনের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে বর্তমান কমিটি ভেঙে দেওয়া হয়। মো. আব্দুল জলিলকে প্রধান করে ২১ সদস্যের অ্যাডহক কমিটি করা হয়েছে। বৈঠকে ইউপি সদস্য মো. শামীম মিয়া, গ্রাম্য মাতবর বেলায়েত হোসেনসহ দুই শতাধিক লোক উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.