ব্রেকিং নিউজ :

মধুপুরে গৃহবধূর রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার ॥ স্বামী আটক

নিজস্ব প্রতিনিধি:টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার কুড়াগাছা ইউনিয়নের গরম বাজার এলাকার ধরাটি টানপাহাড় থেকে বৃহস্পতিবার (২১অক্টোবর) দুপুরে ইয়াসমিন (১৯) নামে এক গৃহবধূর রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ওই এলাকার একটি জলপাই গাছের পাশে দুর্বৃত্তরা তাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই গৃহবধূর স্বামী নুরুন্নবীকে পুলিশ আটক করেছে।

গৃহবধূর চাচা জুলহাস উদ্দিন জানান, কুড়াগাছা ইউনিয়নের ধরাটি গ্রামের হাসু মিয়ার ছেলে নুরুন্নবীর সাথে পারিবারিক সমঝোতায় একই এলাকার আব্দুল লতিফ মৃধার মেয়ে ইয়াসমিনের বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন পর থেকে পারিবারিক কলহের জের ধরে শ্বশুর বাড়ির লোকজন তার উপর নির্যাতন করতো। এক বছর আগে ইয়াসমিন একটি ছেলের জন্ম হয়। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে ধরাটি টানপাহাড় এলাকায় একটি জলপাই গাছের নিচে ইয়াসমিনকে রক্তাক্ত অচেতন অবস্থায় দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইয়াসমিনকে মৃত ঘোষণা করেন।

গৃহবধূর শ্বাশুরি নূরজাহান বেগম জানান, তাদের নতুন বাড়িতে কাজ চলছে। তিনি সেখানে ছিলেন। ছেলের বউ একাই বাড়িতে ছিল। কীভাবে হত্যা হয়েছে তা আমরা জানি না।

মধুপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারিক কামাল জানান, গৃহবধূর বাবা এলে মামলা দায়ের করা হবে। তবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গৃহবধূর স্বামী নুরুন্নবীকে আটক করা হয়েছে।

মধুপুর-ধনবাড়ী সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার শাহীনা আক্তার জানান, গৃহবধূ খুনের বিষয়ে মধুপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুরাদ হোসেন ও দ্বিতীয় কর্মকর্তা আব্বাস উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি টিম রহস্য উদঘাটনে মাঠে নেমেছে।

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.