পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখার ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত ইকবাল গ্রেপ্তার হলেন যেভাবে

পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখার ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত ইকবাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এই সময়ে তার পরনে ছিল লাল শার্ট, গলায় একটি মালা।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজার থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ইকবালকে ধরতে পুলিশকে সহযোগিতা করেন তিন বন্ধু। তারা হলেন-নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের চৌমুহনী সরকারি এস এ কলেজ ছাত্রলীগের নেতা মেহেদী হাসান মিশু, তার বন্ধু সাজ্জাদুর রহমান অনিক ও সাইফুল ইসলাম সাইফ।

তারা জানান, তিন বন্ধু মঙ্গলবার কক্সবাজারে বেড়াতে আসেন। বৃহস্পতিবার সকালে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে হাঁটতে গিয়ে ইকবালকে দেখেন। দেখে ও কথা বলে কুমিল্লা পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরআন রাখার ঘটনায় ভাইরাল হওয়া ভিডিওর ব্যক্তির সঙ্গে ইকবালের মিল পান।

তিন বন্ধু জানান, এরপর তারা ইকবালের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে তোলেন। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত প্রায় ১০ ঘণ্টা সময় ব্যয় করে তার পরিচয় নিশ্চিত হন। এরপর তারা পুলিশকে খবর দেন।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা ইকবালকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। প্রাথমিক তথ্যে আমরা নিশ্চিত হয়েছি এই ব্যক্তি কুমিল্লার ঘটনায় জড়িত। তারপর আমরা বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি।’

কুমিল্লার সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. সোহান সরকার বলেন, ‘আমরা যে ইকবালকে খুঁজছিলাম সে এই ইকবালই। গ্রেপ্তার এড়াতে সে কক্সবাজার এসেছিল।’

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.