ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত পাকিস্তানি ক্রিকেটার বললেন, ‘কম বয়সী মেয়ে ভালো লাগে’!

চোটের কারণে বাংলাদেশ সফরে আসেননি ইয়াসির শাহ। পাকিস্তানি স্পিনারের দুঃসময়ের পালে হাওয়া দিলো বড় অভিযোগ। ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত হয়েছেন ইয়াসির। এক কিশোরীকে ধর্ষণ ও হুমকি দিতে বন্ধুকে সহায়তা করেছেন তিনি।

ইসলামাবাদের শালিমার পুলিশ স্টেশনে দায়েরকৃত মামলায় বলা হয়েছে, ইয়াসিরের বন্ধু ফারহান এক তরুণীকে বন্দুক দেখিয়ে অপহরণ করেন। সেই কাজে তাকে সাহায্য করেছিলেন ইয়াসির। পরে ফারহান তরুণীকে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ। মামলায় বলা হয়, ঘটনাটি ঘটেছে গত ১৪ আগস্ট। তবে এখনও কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।

ধর্ষণের শিকার ১৪ বছর বয়সী কিশোরী দায়েরকৃত মামলায় বলেছেন, ‘আমি ওই ঘটনার পর ইয়াসিরের সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে যোগাযোগ করি।

তাকে সব কিছু খুলে বলি। কিন্তু ঘটনা শুনে ও হেসে দিয়েছিল। আর বলেছিল কম বয়সী মেয়ে তার ভালো লাগে।’ ঘটনাটি না জানানোর জন্য ভিক্টিমকে হুমকিও দেয় ইয়াসির। ঘটনা ধামাচাপা দিতে ইয়াসির তাকে একটি ফ্ল্যাট কিনে দিতে ও আগামী ১৮ বছর তার ব্যয়ভার বহনেরও প্রস্তাব দিয়েছে।
কিশোরী বলেছেন, ‘ইয়াসির বলেছেন, তিনি অত্যন্ত প্রভাবশালী ব্যক্তি এবং তিনি একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাকে চেনেন। তাছাড়া ইয়াসির ও ফারহান ভিডিও করে নাবালিকাদের ধর্ষণ করেন।’

ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) জানিয়েছে, তারা বিষয়টি সম্পর্কে অবগত। এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘পিসিবি এই মুহূর্তে ঘটনার বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছে। সব জানার পরই মন্তব্য করতে পারবে।’
তরুণীর অভিযোগের বিষয়ে অবশ্য ইয়াসিরের তরফে এখনও পর্যন্ত কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

এক বছর আগেই ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত হয়েছিলেন পাকিস্তানের আরেক ক্রিকেটার বাবর আজম। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে পাক অধিনায়কের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ করেন হামিজা মুখতার নামের এক নারী। যদিও সেই নারী ২০২১ সালের শুরুতে নিজের অভিযোগ তুলে নিয়েছিলেন।

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.