মধুপুরে কাঠ পোড়ানোয় ৪ ইটভাটার মালিককে জরিমানা

নিউজ ডেস্ক: টাঙ্গাইলের মধুপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে উপজেলার চার ইটভাটায় কাঠ পোড়ানোর অপরাধে ইটভাটার মালিককে সাড়ে ৪ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন।

বুধবার বিকেলে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন মধুপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্যাট শামীমা ইয়াসমীন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মধুপুরের বিভিন্ন ইটভাটায় বনজ সম্পদ লাকড়ী পোড়ানোর হচ্ছে এবং বিষয়টি সম্প্রতি প্রশাসনের নজরেও আসে। বুধবার পরিবেশ অধিদফতরের উপ-পরিচালকসহ মধুপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের নিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক মধুপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামীমা ইয়াসমীন দড়িহাতিল গ্রামের তিতাস ব্রিকস্ ও মধুপুর ব্রিকস্ ও কুড়ালিয়া গ্রামের সিটি ব্রিকস্ ও দূর্গাপুরের রিপন ব্রিকস্ কয়লার পরিবর্তে বনজ সম্পদ লাকড়ি পোড়াতে দেখেন।

পরে তিনি তিতাস ব্রিকসের মালিক ছানোয়ার হোসেনকে ১ লাখ ৫০ হাজার, সিটি ব্রিকসের মালিক জুবাইদুল কবীর, মধুপুর ব্রিকসের মালিক মহিউদ্দিন লেলেক মাস্টার ও রিপন ব্রিকসের মালিক আবু হানিফাসহ প্রত্যেককে ১ লাখ টাকা করে জরিমানা করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে উপস্থিত ছিলেন, পরিবেশ অধিদফতরের উপ-পরিচালক তাপস চন্দ্র পাল, ফায়ার সার্ভিসের (মধুপুর) স্টেশন অফিসার হেমায়েল কবীর, মধুপুর থানার এসআই মিজানুর রহমান।

ভাটা মালিকদের ১৫ দিনের মধ্যে জ্বালানি কাঠ পোড়ানো বন্ধের মুচেলেকা নেয়া হয়েছে অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।

এ অভিযান ধারাবাহিকভাবে চলবে বলে জানান পরিবেশ অধিদফতরের উপ-পরিচালক।

 

 

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.