সোমবার, মে ২৭, ২০২৪
Homeঅপরাধসখীপুরে হাত-পা-মুখ বাঁধা সেই লাশের পরিচয় মিলেছে

সখীপুরে হাত-পা-মুখ বাঁধা সেই লাশের পরিচয় মিলেছে

নিজস্ব প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের সখীপুরে হাত-পা ও মুখে কাপড় দিয়ে বাঁধা অবস্থায় অজ্ঞাত পরিচয় লাশের পরিচয় মিলেছে। লাশটি উপজেলার কালিয়া ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের আবদুল জলিল মিয়ার ছেলে আমিনুল ইসলামের (৩৮)।

তিনি পেশায় ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চালক। ফেসবুকে লাশ উদ্ধারের খবর পেয়ে আমিনুলের বাবা জলিল মিয়া রোববার রাতে সখীপুর থানায় এসে ছেলের লাশ সনাক্ত করেন। আজ সোমবার থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ফজলুল হক এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

নিহতের বাবা আবদুল জলিল মিয়া বলেন, আমিনুল প্রায় দুই বছর ধরে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা চালায়। শনিবার বিকেলে অটোরিকশা নিয়ে বের হয়ে রাতে আর বাড়ি ফিরেনি। তার মোবাইল ফোনটিও বন্ধ পাওয়া যায়। রোববার সারাদিন খোঁজাখুঁজির পর ফেসবুকের মাধ্যমে খবর পেয়ে থানায় গিয়ে ছেলের লাশ দেখতে পাই। ছিনতাইকারীরা আমার ছেলেকে হাত-পা বেঁধে খুন করে অটোরিকশাটি নিয়ে গেছে। আমার ছেলের হাত-পা ও মুখে যে কাপড় দিয়ে বাঁধা ছিল, ওইগুলো আমার নাতনির (আমিনুলের মেয়ে) পুরোনো ওঁড়নার কাপড়। অটোরিকশাটি পরিষ্কারের জন্য গাড়িতেই রাখা ছিল।

তিনি আরও বলেন, ওসি স্যার (থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) কথা দিয়েছেন, আমার ছেলের খুনিদের ধরতে তিনি সর্বাত্মক চেষ্টা করবেন।

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ শাহিনুর রহমান  বলেন, লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ছিনতাইকারী ওই চক্রটিকে ধরতে পুলিশ ইতিমধ্যে কাজ শুরু করেছে।

উল্লেখ্য, গত রোববার (২৯ অক্টোবর) বেলা ১১টার দিকে উপজেলার বহুরিয়া ইউনিয়নের কালমেঘা বেলতলী এলাকায় বনের ভেতর দিয়ে যাওয়া সড়কের পাশ থেকে পুলিশ আমিনুল ইসলামের লাশ উদ্ধার করে। তাৎক্ষণিক কেউ ওই যুবকের পরিচয় সনাক্ত করতে পারেনি। লাশের হাত-পা ও মুখ ওঁড়নার কাপড় দিয়ে বেঁধে রাখা ছিল।

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

- Advertisement -
- Advertisement -