মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২৪
Homeটাঙ্গাইল জেলানির্বাচনের পর বিএনপি বিলুপ্ত হবে: কৃষিমন্ত্রী

নির্বাচনের পর বিএনপি বিলুপ্ত হবে: কৃষিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেছেন, বিএনপি একটি বড় রাজনৈতিক দল। তারা বার বার ভুল করছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা মোকদ্দমা রয়েছে। আদালত কর্তৃক তারা অপরাধী। বেগম খালেদা জিয়াও এতিমের টাকা চুরি করাতেও তার বিরুদ্ধে শাস্তি হয়েছে। কাজেই তারা মনে করে নির্বাচন হওয়া উচিত নয়।

মন্ত্রী বলেন, তারা নির্বাচন এলে তো দাঁড়াতে পারে না। কারণ বিএনপির নেতৃত্ব অন্য কেউ নিয়ে নেবে। আন্তর্জাতিক মহলও পর্দার অন্তরাল থেকে বিএনপিকে নির্বাচন অংশ গ্রহণ করার জন্য। কিন্তু তারা নির্বাচনে আসছে না। এ দেশে মুসলিম লীগ নামে একটি দল ছিল, সেটি বিলুপ্ত হয়ে গেছে। এ নির্বাচনের পর বিএনপি বিলুপ্ত হবে।

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) বেলা ১১ টায় টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার শামীমা ইয়াসমীনের কাছে মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন তিনি।

কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, কোন ক্রমেই আওয়ামী লীগ আন্দোলন সংগ্রামে ব্যর্থ হয় নাই। আগামী নির্বাচন একটি আন্দেলনের অংশ। আমরা এই নির্বাচনেও বিজয় হবো। কিছু কিছু কর্মী তারা যদি স্বতন্ত্র নির্বাচন করে। সেটি তাদের ব্যক্তিগত ব্যাপার। কিন্তু সাধারণ ভোটাররা আমাদের নেতাকর্মীরা দলের পক্ষে থাকবে, দলের জন্য কাজ করবে।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, আমি মনে করি যারা নির্বাচনে দাঁড়িয়েছে তারা সকলেই শক্তিশালী প্রার্থী। আমি বলার কেউ নয়, এটা মূল্যায়ন করবে ভোট দিয়ে জনগণ। আমরা নির্বাচনে ৭ তারিখ পর্যন্ত অপেক্ষা করি। আমরা দেখব তারা কতটা জনপ্রিয় এটা আমি কোন মন্তব্য করতে চাই না। আমি জয়ের ব্যাপারে ১০০ ভাগ আশাবাদী।

তিনি আরও বলেন, আপনারা জানেন- ২০১৪ সালের নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেগম খালেদা জিয়াকে নির্বাচনে আনার জন্য ৩৮ মিনিট টেলিফোনে কথা বলেছিল। কিন্তু বেগম খালেদা জিয়া নেত্রীর আহবানে সাড়া দেননি। তিনি (খালেদা জিয়া) মনে করেছিল আন্দোলন, সন্ত্রাস, আগুন সন্ত্রাস, রেললাইন তুলে, বিদ্যুত লাইক কেটে, গাড়িতে আগুন, পুলিশ হত্যা করে আন্দোলন সফল করবে এবং তাদের ইচ্ছে মতো নির্বাচন কমিশন করে, একটি ভূয়া নির্বাচন করে ক্ষমতায় আসবে।

কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, সারা জাতি ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাদের সন্ত্রাস, আন্দোলনকে প্রত্যাখান করেছে। আবার ২০১৮ সালের নির্র্বাচন এসেছিল নির্বাচনে তাদের ভরাডুবি হয়েছে। তাদের নেতা থাকে বিদেশে, দেশে আসার সৎ সাহস নেই। আগামী দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠ, সুন্দর নিরপক্ষ একটি নির্বাচন হবে। এই নির্বাচন সারা বিশ্বের কাছে একটি গ্রহনযোগ্য নির্বাচন হবে।

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

- Advertisement -
- Advertisement -