রবিবার, এপ্রিল ১৪, ২০২৪
Homeটাঙ্গাইল জেলাসা’দত কলেজে ককটেল বিস্ফোরণ, যুবককে গণপিটুনি

সা’দত কলেজে ককটেল বিস্ফোরণ, যুবককে গণপিটুনি

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: টাঙ্গাইলের সরকারি সা’দত বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে ছাত্রলীগের পৃথক দুইটি কমিটির দ্বন্দ্বে ক্যাম্পাস উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। এর জেরে বুধবার দুপুরে কলেজের প্রশাসনিক ভবনের সামনে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটালে শিক্ষার্থীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

এ ঘটনায় জড়িত ছাত্রলীগ নেতা সজিবকে সাধারণ শিক্ষার্থীরা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ক্যাম্পাসে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

জানা গেছে, ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর মিলন মাহমুদকে আহ্বায়ক করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির অনুমোদন দেয় টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগের একপক্ষ।

এতে স্বাক্ষর করেন টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল, যুগ্ম-আহ্বায়ক তানভীরুল ইসলাম হিমেল ও শফিউল আলম মুকুল।

কমিটি প্রকাশ করার পরপরই শুরু হয় আলোচনা-সমালোচনা। এ কমিটিকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা।

অপরদিকে, মঙ্গলবার সা’দত কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রতন মিয়াকে আহ্বায়ক করে ৪৯ সদস্য বিশিষ্ট আরেকটি কমিটির অনুমোদন দেয় টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগ আরেক পক্ষ।

এতে স্বাক্ষর করেন টাঙ্গাইল জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক রনি আহম্মেদ এবং রাশেদুল হাসান জনি। সা’দত কলেজে ছাত্রলীগের ওই পাল্টাপাল্টি কমিটি নিয়ে কলেজ ক্যাম্পাসে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছিল।

বুধবার দুপুর ১টার দিকে বহিরাগত সজিব প্রশাসনিক ভবনের সামনে একটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এ সময় শিক্ষার্থীরা আতঙ্কে ক্যাম্পাসে ছুটোছুটি করে।

পরে কলেজের ছাত্রলীগ নেতা মো. রতন মিয়া, সাদ্দাম হোসেন বাঁধন, ইলিয়াস হাসান, সৈকত ও কলেজের প্রধান সহকারী মোহাম্মদ আলীর নেতৃত্বে সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীরা ককটেল বিস্ফোরণকারী বহিরাগত সজিবকে ধরে গণপিটুনি দেয়।

একপর্যায়ে তাকে টাঙ্গাইল মডেল থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। আটক সজিবের বাড়ি নাগরপুর উপজেলায়। তিনি টাঙ্গাইল শহরের থানা পাড়ায় মেসে থাকেন।

টাঙ্গাইল মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সায়েদুর হক জানান, সা’দত কলেজে ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় সজিব নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। আটক সজিবকে ছাত্ররা উত্তম-মধ্যম দিয়েছে। তাকে পুলিশ প্রহরায় টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এ প্রসঙ্গে করটিয়া সরকারি সা’দত বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ মো. রেজাউল করিম জানান, ককটেল বিস্ফোরণকারী সজিব বহিরাগত। সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের সহায়তায় তাকে আটক করে থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

- Advertisement -
- Advertisement -